ঢাকা, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১

শেয়ারবাজার থেকে উত্তোলন ৫২৩.৭৯ কোটি টাকা : লভ্যাংশ দিতে রিজার্ভ ফাঁকা ৪৬৯.৭৮ কোটি

২০২৪ ফেব্রুয়ারি ১৭ ০৯:৫৯:৫২
শেয়ারবাজার থেকে উত্তোলন ৫২৩.৭৯ কোটি টাকা : লভ্যাংশ দিতে রিজার্ভ ফাঁকা ৪৬৯.৭৮ কোটি

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত মোবাইল অপারেটর কোম্পানি গ্রামীনফোনের পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের শত শত শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয়। কিন্তু একইখাতের এবং কয়েক গুণ বেশি মূলধন নিয়েও রবি আজিয়াটা ১০ শতাংশের মধ্যে লভ্যাংশ দিতে গিয়েও রিজার্ভে হাত দিতে হচ্ছে। কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার পর প্রতিবছরই রিজার্ভ থেকে লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এতে করে কোম্পানিটিকে ৩ বছরে (২০২১-২০২৩) ৪৬৯ কোটি ৭৮ লাখ টাকা রিজার্ভ থেকে দিতে হচ্ছে। যেখানে কোম্পানিটি শেয়ারবাজার থেকে ৫২৩ কোটি ৭৯ লাখ টাকা সংগ্রহ করেছিল।

রবি আজিয়াটা ১৯৯৫ সালের ২২ অক্টোবর গঠিত হয় এবং একইদিনে ব্যবসা শুরু করে। আর গ্রামীণফোন গঠিত হয় ১৯৯৬ সালের ১০ অক্টোবর। এই ১ বছর পরে গঠিত হয়েও গ্রামীণফোন এখন বছরে কয়েক হাজার কোটি টাকা মুনাফা করে। আর রবি আজিয়াটা এখনো মুনাফা ধরে রাখতে লড়াই করে যাচ্ছে। অথচ গ্রামীণফোনের থেকে রবির কয়েকগুণ বেশি পরিশোধিত মূলধন রয়েছে।

গত ৩ বছরে (২০২১-২০২৩) রবি আজিয়াটার নিট মুনাফা হয়েছে ৬৮২ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। তবে কোম্পানিটির পর্ষদ লভ্যাংশ দিচ্ছে ১ হাজার ১৫২ কোটি ৩৫ লাখ টাকার। অর্থাৎ মুনাফার থেকে ৪৬৯ কোটি ৭৮ লাখ টাকার বেশি লভ্যাংশ দেওয়া হচ্ছে।

রবি আজিয়াটার পরিচালনা পর্ষদ বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) ২০২৩ সালের ব্যবসায় শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১০% নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। একইসময়ের ব্যবসায় কিছুদিন আগে গ্রামীনফোনের পরিচালনা পর্ষদ চূড়ান্ত ১২৫% নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করে।

ব্যবসায় এই দূর্বলতার কারনে গ্রামীণফোনের আগে প্রতিষ্ঠিত হয়েও রবি আজিয়াটা শুধুমাত্র অভিহিত মূল্য ১০ টাকায় শেয়ার ইস্যু করতে বাধ্য হয়। অথচ রবির ১১ বছর আগে গ্রামীণফোন ৬০ টাকা প্রিমিয়ামসহ প্রতিটি শেয়ার ৭০ টাকা করে ইস্যু করার সক্ষমতা অর্জন করেছিল।

রবি আজিয়াটার ২০২৩ সালের ব্যবসায় শেয়ারপ্রতি ০.৬১ টাকা হিসেবে ৩১৯ কোটি ৫১ লাখ টাকার নিট মুনাফা হয়েছে। তবে কোম্পানিটির পর্ষদ ১০ শতাংশ হারে বা শেয়ারপ্রতি ১ টাকা করে মোট ৫২৩ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বা মুনাফার ১৬৪% নগদ লভ্যাংশ বিতরন করা হবে। এক্ষেত্রে মুনাফার অতিরিক্ত ২০৪ কোটি ২৮ লাখ টাকা রিজার্ভ থেকে দেওয়া হবে।

একই সময়ে গ্রামীণফোনের ২০২৩ সালের ব্যবসায় শেয়ারপ্রতি ২৪.৪৯ টাকা হিসেবে ৩ হাজার ৩০৬ কোটি ৮৮ লাখ টাকার নিট মুনাফা হয়েছে। এরমধ্যে থেকে ১২৫ শতাংশ হারে বা শেয়ারপ্রতি ১২.৫০ টাকা করে মোট ১ হাজার ৬৮৭ কোটি ৮৮ লাখ টাকার বা মুনাফার ৫১% নগদ লভ্যাংশ বিতরন করা হবে। বাকি ১ হাজার ৬১৯ কোটি টাকা বা ৪৯% রিজার্ভে যোগ হবে।

এর আগেও ২০২১ ও ২০২২ সালের ব্যবসায় রিজার্ভ থেকে লভ্যাংশ দেয় দূর্বল ব্যবসার রবি আজিয়াটা। ওই ২ বছরে কোম্পানিটির নিট মুনাফা হয় ৩৬৩ কোটি ৬ লাখ টাকা। তবে কোম্পানিটির পর্ষদ লভ্যাংশ দেয় ৬২৮ কোটি ৫৬ লাখ টাকার। অর্থাৎ মুনাফার থেকে ২৬৫ কোটি ৫০ লাখ টাকার বেশি লভ্যাংশ দেওয়া হয়।

এ কোম্পানিটির পর্ষদ ২০২১ সালের ব্যবসায় শেয়ারপ্রতি ০.৩৪ টাকা বা নিট ১৮০ কোটি ৩৪ লাখ টাকার মুনাফার বিপরীতে ৫ শতাংশ হারে ২৬১ কোটি ৯০ লাখ টাকার নগদ লভ্যাংশ দেয়।

এরপরে ২০২২ সালে এ কোম্পানিটির পর্ষদ শেয়ারপ্রতি ০.৩৫ টাকা বা নিট ১৮২ কোটি ৭২ লাখ টাকার মুনাফার বিপরীতে ৭ শতাংশ হারে ৩৬৬ কোটি ৬৬ লাখ টাকার নগদ লভ্যাংশ দেয়।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া রবি আজিয়াটার ৫ হাজার ২৩৭ কোটি ৯৩ লাখ টাকার পরিশোধিত মূলধন রয়েছে। এ কোম্পানিটি ২০২০ সালে অভিহিত মূল্যে অর্থাৎ প্রতিটি ১০ টাকায় ৫২ কোটি ৩৭ লাখ ৯৩ হাজার ৩৩৪টি শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে মোট ৫২৩ কোটি ৭৯ লাখ ৩৩ হাজার ৩৪০ টাকা সংগ্রহ করে। যা এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ শেয়ার ইস্যু।

রবির নতুন শেয়ারের মধ্যে ৩৮৭ কোটি ৭৪ লাখ ২৪ হাজার টাকার শেয়ার আইপিওতে ইস্যু করা হয় শেয়ারবাজারের বিনিয়োগকারীদের জন্য। বাকি ১৩৬ কোটি ৫ লাখ ৯ হাজার ৩৪০ টাকার শেয়ার ইস্যু করা হবে কোম্পানির কর্মচারীদের জন্য।

পাঠকের মতামত:

শেয়ারবাজার এর সর্বশেষ খবর

শেয়ারবাজার - এর সব খবর



রে